1. admin@dailygoraishobvotha.com : dailygorai : Salim Takku
শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
যেভাবে মাদক ব্যবসাহী থেকে পাটিকাবাড়ি ইউপি’ চেয়ারম্যান সফর আলী- গড়াই সভ্যতা কুষ্টিয়া পাটিকাবাড়ি ইউপি’ চেয়ারম্যানের মাদক সেবনের ভিডিও ভাইরাল- গড়াই সভ্যতা কুষ্টিয়া মহিলাদলের কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত-গড়াই সভ্যতা উৎসবমুখর পরিবেশে ১৪ ইউপি নির্বাচন সম্পন্ন- গড়াই সভ্যতা ঝিনাইদহে হিজড়া প্রার্থীর কাছে নৌকার ভরাডুবি- গড়াই সভ্যতা ঘরে বসে ৩০টি দেশে মোস্তাকিমের তথ্যপ্রযুক্তি সেবা- গড়াই সভ্যতা কুষ্টিয়ায় পদ্মা নদী থেকে অর্ধগলিত অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার-গড়াই সভ্যতা কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করতে পুলিশ নিরপেক্ষ ভাবে দায়িত্ব পালন করবে ..এসপি- গড়া ই সভ্যতা করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনকে ‘উদ্বেগজনক’ বললেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা- গড়াই সভ্যতা কুষ্টিয়া সদরের ১১ টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আগামী ৫ জানুয়ারী- গড়াই সভ্যতা

ঝিনাইদহে যুবলীগ নেতা বোমা মেরে হত্যা, ৮ জনের যাবজ্জীবন- গড়াই সভ্যতা

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২১
  • ৭৩ বার পঠিত

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কাশিমনগর গ্রামে যুবলীগ নেতা জাকির হোসেন মণ্ডল ওরফে শান্তি হত্যা মামলায় ৮ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) সকালে অতিরিক্ত দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক মো. শওকত হোসাইন এ দণ্ডাদেশ দেন। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা ও বিস্ফোরক আইনে ৭ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

দণ্ডিতরা হলেন- শান্তি হোসেন, আব্দুল করিম, লাভলু, আবু জাহিদ মনি, মিজানুর রহমান ওরফে টাক মিজান, ইব্রাহিম খলিল ওরফে ইদ্রিস ওরফে ইদু, মুকুল ও নাসির।

এ মামলায় অপর আসামি গান্না ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন মালিথার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে বেকসুর খালাস এবং মশিউর রহমান, উজ্জ্বল হোসেন মৃত হওয়ায় তাদের মামলা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১০ সালের ৭ জুলাই গান্না বাজার থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফিরছিল তৎকালীন ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জাকির হোসেন মণ্ডল। পথে কাশিমনগর ব্রিজের ওপর পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা তাকে লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালায়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। সেখানে থেকে তাকে প্রথমে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল এবং পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়। সেখানে অবস্থান অবনতি হলে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১১ জুলাই সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহতের শ্বশুর সিরাজুল ইসলাম মালিথা বাদী হয়ে সদর থানায় অজ্ঞাতদের আসামি করে হত্যা ও বিস্ফোরক ধারায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে ১১ জনকে আসামি করে চার্জশিট দাখিল করে। এর মধ্যে গান্না ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন মালিথাও ছিলেন। মামলা চলাকালে আটক আসামিদের মধ্যে ৩ জন ঘটনার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেয়। মোট ১৯ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ ও দীর্ঘ বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে আদালত সোমবার এ মামলায় রায় ঘোষণা করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2019 daily gorai
Theme Customized BY LatestNews