1. admin@dailygoraishobvotha.com : dailygorai : Salim Takku
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৩৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কুষ্টিয়ায় সাব রেজিস্ট্রার হত্যা মামলায় ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড ১ জনের যাবজ্জীবন- গড়াই সভ্যতা তালেবানদের লক্ষ্য করে সিরিজ হামলা, নিহত ৩- গড়াই সভ্যতা কুষ্টিয়া গড়াই নদীতে ধরা পরলো রাসেলস ভাইপার, ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা- গড়াই সভ্যতা নেচে-গেয়ে মরদেহ দাফন: সেই ভণ্ডপীর শামীম কারাগারে- গড়াই সভ্যতা নোয়াখালীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে একই বাড়ির ৪ জনের মৃত্যু-গড়াই সভ্যতা আবরার হত্যা: ২২ আসামী নির্দোষ – গড়াই সভ্যতা টিকা নিশ্চিত হলেই খুলবে ইবি’- গড়াই সভ্যতা ১০-১২ নভেম্বর শুরু হতে পারে এসএসসি- গড়াই সভ্যতা নিজ অস্ত্রের গুলিতে র‍্যাব সদস্যের মৃত্যু- গড়াই সভ্যতা যেসব শিক্ষকের তালিকা চেয়েছে সরকার- গড়াই সভ্যতা

দুই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা- গড়াই সভ্যতা

জিল্লু নাটোর থেকেঃ
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৩০ আগস্ট, ২০২১
  • ৪৬ বার পঠিত

নাটোরে চুক্তি ভঙ্গ করে সরকারি সড়কের মারাত্মক ক্ষতি করার দায়ে মীর হাবিবুল আলম ও মো. আলম নামের দুই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন জেলার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। একই সঙ্গে ঠিকাদারদের কার্যকলাপের সঙ্গে সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তাদের কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কি না, তা তদন্ত করার জন্য এবং জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে আদালতকে অবহিত করার জন্য সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলীকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

রোববার (২৯ আগস্ট) অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এ এফ এম গোলজার রহমান এই আদেশ দেন।

মীর হাবিবুল আলম নাটোর পৌরসভার উত্তর বড়গাছা এলাকার মীর ফখরুল আলমের ছেলে এবং মীর হাবিবুল আলম ফার্মের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। মো. আলম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ধানমন্ডি এলাকার আব্দুল গফুরের ছেলে এবং রানা বিল্ডার্স প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ঠিকাদার মীর হাবিবুল আলম এবং মো. আলম কার্যাদেশের চুক্তি ভঙ্গ করে সড়কের ‘রাইট অব ওয়ে’ থেকে মাটি উত্তোলন করে দীর্ঘ মেয়াদে সরকারি সড়কের মারাত্মক ক্ষতি সাধন করেছেন।

নাটোর-বগুড়া মহাসড়ক প্রশস্ত করণ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক এবং রংপুর সড়ক জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান, পাবনা সড়ক সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সমীরণ রায়, নাটোরের সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুর রহিম, নাটোর সড়ক বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মো. আমানউল্লাহ আমানসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা জড়িত আছেন কি না, তা তদন্ত করতে এবং জড়িত থাকলে দোষীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে আগামী ১৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আদালতকে জানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, “গ্রেপ্তারি পরোয়ানা হাতে পেয়েছি। আদালতের নির্দেশ মোতাবেক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।”

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2019 daily gorai
Theme Customized BY LatestNews