1. admin@dailygoraishobvotha.com : dailygorai : Salim Takku
শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ০৪:২৮ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ায় ১৮ দিন চলছে লকডাউন থেমে নেই আক্রান্ত ও মৃত্যু

ফয়সাল চৌধুরী , কুষ্টিয়া
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই, ২০২১
  • ৪৮ বার পঠিত

কুষ্টিয়ায় ১৮ দিন ধরে চলছে লকডাউন থেমে নেই করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু ঘটনা।জুলাই মাসের গত ৭ দিনে করোনা আক্রান্ত হয়ে ৭৫ জনের মৃত্যু হয়েছে একই সঙ্গে ১৬১৫ জনের দেহে করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ সনাক্ত হয়।কুষ্টিয়ায় গত ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন মোট ১৭ জন।

কুষ্টিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় (৭ জুলাই) ২৩২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

পিসিআর ল্যাব ও সিএস অফিস তথ্য মতে ৭ জুলাই ৭শত ৩৪ টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত রোগীদের মধ্যে কুষ্টিয়া সদরে রয়েছেন ৬২ জন, মৃত্যু হয় ৩ জনের।কুমারখালী ৫৯ জন, মৃত্যু হয় ৩ জনের। দৌলতপুরে ৪২ জন, মৃত্যু বরন করেন ২ জন।ভেড়ামারায় ২৯ জন, মৃত্যু বরন করেন ২ জন।মিরপুরে ২৫ জন, মৃত্যু বরন করেন ০০ জন। খোকসায় ১৫ জন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরন করেন ১ জন। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় জেলায় শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ২২ শতাংশ। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৯ হাজার ৬৬৪ ।সুস্থ হয় ৬ হাজার ১ শত ৫৭ জন। গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়েছেন ১২৭ জন। বর্তমানে জেলায় মোট আক্রান্ত ৩ হাজার ২৩২ ।হোম আইসোলেশনে আছে ২ হাজার ৯ শত ৫৬ জন।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যে জানা গেছে ৮ জুলাই করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।বুধবার থেকে বৃহপতিবার পযর্ন্ত ১০ জনের মৃত্যুসহ আজ পর্যন্ত জেলায় মোট ২৯৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরন করেন ।

আজ বৃহপতিবার দুপুর ১টার সময় কুষ্টিয়া ২০০ শয্য করোনা ডেডিকেডেট হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. আবদুলসমোমেন বলেন, গত ২৪ ঘন্টায় (৭ জুলাই সকাল ৮ টা – ৮ জুলাই সকাল ৮ টা ) পর্যন্ত সদর হাসপাতালের করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেছেন ১০ জন।করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু বরণ করেছেন ৭ জনসহ সদর হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেছেন ১৭ জন।তিনি আরো বলেন, মানুষ করোনায় সম্পর্কে সচেতন না হলে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া সম্ভব নয়। এখনো গ্রামের মানুষ জ্বর–ঠান্ডা হলে অসচেতনভাবে থাকছেন।এমনকি সঠিক সময়ে চিকিৎসা ও করোনা টেস্টও করাতে অনীহা দেখাচ্ছেন।জুনের তুলনায় চলতি জুলাই মাসে রোগীদের চাপ বেড়ে গেছে ।
বতর্মান মোট রুগী ভর্তি আছে ২৮৯ জন।করোনা আক্রান্ত হয়ে ভর্তি আছে ২০২ জন ও করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি আছে ৮৭। জন। ভর্তি হওয়া বেশী ভাগ রুগীর অকসিজেন সাপোর্ট লাগছে।গ্রমের মানুষের দেহে ভারতের করোনার ডেল্টা ভেরিয়েনট উপস্থিত লক্ষণ দেখা যাচ্ছে।

কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, গত ২৪ ঘন্টায় ১০ জনের মৃত্যু হয় । কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে ১০ জনের মৃত্যু হয়।

এ দিকে কুষ্টিয়ায় লকডাউনের আজ ১৮ দিন ধরে চলছে । প্রত্যেকটি মানুষের মানা উচিত নির্দিষ্ট বিধি নিষেধ, প্রত্যেকটি মানুষের উচিত খুবই প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাহিরে বের না হওয়া । সরকার থেকে যে বিধিনিষেধ দেওয়া হয়েছে তা মলাছ্ন না অনেকেই । করোনা আর মানুষের মধ্যে জীবন যুদ্ধের লড়াইয়ে প্রতিদিনই করোনার জয় হচ্ছে । কিন্তু তারপরেও থেমে নেই মানুষের অকারনে বাহিরে বের হওয়া । এর ফলে প্রতিদিনই নতুনভাবে আক্রান্ত ও মৃত্যু হচ্ছে মানুষ ।মানুষ যেন বিভিন্ন কারনে তাদের বিবেক বুদ্ধি হারিয়ে ফেলছে।তাদের কি জীবনের কোন ভয় নেই। না আছে তাদের মধ্যে করোনার ভয় না আছে সরকারের বিধি নিষেধ মেনে চলার মনোভাব । প্রতিনিয়তই দেখা যাচ্ছে মানুষ বিনা কারণে বাহিরে যাচ্ছে ঘুরে বেড়াচ্ছে চায়ের দোকানে উপচে পড়া ভিড়, এমন কিছু দোকান খোলা রয়েছে যেগুলো খোলা কোন দরকারই নেই । বিভিন্ন জায়গায় বসেছে মানুষের আড্ডার আসর।এর ফলে লোক সমাগমের ভিড়ে নতুন নতুন করে করোনা ভাইরাস কোভিড- ১৯ আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ । এই করোনা মহামারীকে থামাতে হলে আমাদের নিজেদেরকেই সচেতন হতে হবে । না হলে প্রতিদিনই দেখতে হবে আমাদের প্রিয় জনের মরদেহ ।

কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব ( কেপিসির) সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব বলেন, সবই প্রশাসন করে দেবে, মানুষের বিবেক বুদ্ধি নেই? তাই সবাইকে বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে।নিজের ঘরে স্বাভাবিকভাবে থাকুন । মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস ব্যবহার করুন এবং খুবই প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের না ।বাড়ির বাহিরে বেড় না হওয়াটাই আমাদের এবং আমাদের পরিবারের সকলের জন্য শ্রেয় ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2019 daily gorai
Theme Customized BY LatestNews